বাংলা-কিবোর্ড

এন্ড্রয়েড ফোন এর 7 টি বাংলা কিবোর্ড (Bangla Keyboard) ফিচার

এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা ৭ টি বাংলা কিবোর্ড

এই ব্লগে সেরা এন্ড্রয়েড ফোনের ৭ টি বাংলা কিবোর্ড এর ফিচার নিয়ে আলোচনা করেছি। ইন্টারনেটে আমরা সবাই কমবেশি বাংলায় লিখি। মানুষের সাথে যোগাযোগ করার জন্য হোক বা গুগলে বাংলায় কিছু সার্চ করার জন্য হোক – আমাদের মোবাইলে বাংলা টাইপিং অ্যাপ দরকার। আপনি চাইলে ফোনেটিক মোডে অর্থাৎ কীবোর্ডে ইংরেজি অক্ষরে লিখে অটোমেটিক বাংলা অক্ষরে স্ক্রিনে পেতে পারেন।বাংলা-কিবোর্ড

অথবা আপনি বাংলা কিবোর্ড সফটওয়্যারে সরাসরি বাংলা অক্ষর টাইপ করতে পারেন। আপনি বাংলা কীবোর্ড অ্যাপে আপনার পছন্দ মতো পদ্ধতি পেতে পারেন। আজ আপনি ৬ টি মোবাইল বাংলা কিবোর্ড অ্যাপ সম্পর্কে জানবেন যেগুলি ব্যবহার করে আপনি আপনার স্মার্টফোন থেকে সহজেই বাংলা টাইপ করতে পারবেন। এর মধ্যে কিছু কীবোর্ডে ভয়েস টাইপিংয়ের মতো দুর্দান্ত কিছু বৈশিষ্ট্য রয়েছে। কিছু কীবোর্ড Android এবং iPhone উভয়ের জন্য উপলব্ধ। কেউ কেউ আবার শুধুমাত্র Android এর জন্য এটি পাবেন। আর আপনি যদি কম্পিউটারে বাংলা লেখার সফটওয়্যার খুঁজছেন তাহলে এই পোস্টের শেষে দেখুন।

বাংলা কিবোর্ড

২৩০০০-এর বেশি ৪.৫ স্টার রেটিং সহ, আমাদের তালিকায় বাংলা লেখার জন্য একটি কীবোর্ড অ্যাপ রয়েছে, যার নাম “বাংলা কীবোর্ড”। ভারতে তৈরি এই অ্যাপের মাধ্যমে মোবাইল ফোনে সহজেই বাংলা লেখা যাবে।বাংলা কীবোর্ড অ্যাপটিতে ভয়েস ব্যবহার করে বাংলা টাইপ করার সুবিধা রয়েছে। এছাড়াও রয়েছে বিভিন্ন বাংলা স্টিকার। বাংলা কীবোর্ড অ্যাপে ইমোজি সাপোর্ট রয়েছে। থিম পরিবর্তন এবং আপনার পছন্দ মত কাস্টমাইজ করার একটি সুবিধা আছে.

জিবোর্ড বাংলা কিবোর্ড

আমাদের তালিকার শীর্ষে রয়েছে গুগলের তৈরি কীবোর্ড অ্যাপ, কীবোর্ড বা গুগল কীবোর্ড। কীবোর্ডটি বৈশিষ্ট্যে এতটাই সমৃদ্ধ যে আপনি সমস্ত বৈশিষ্ট্য ব্যবহার করতে পারবেন না। Gboard অ্যাপে একাধিক ধরনের টাইপিং বৈশিষ্ট্য রয়েছে – গ্লাইড টাইপিং, ভয়েস টাইপিং এবং এমনকি হাতের লেখা ভিত্তিক টাইপিং। কীবোর্ডে অন্তর্নির্মিত Google অনুবাদ বৈশিষ্ট্যও রয়েছে।

এই কীবোর্ডে সার্চের মাধ্যমে কাঙ্খিত ইমোজি সহজেই পাওয়া যাবে। এছাড়াও বিভিন্ন অঙ্গভঙ্গি বৈশিষ্ট্য, এক হাতের মোড, থিম ইত্যাদি রয়েছে।অসংখ্য স্টিকার সহ স্টিকার লাইব্রেরি ছাড়াও কীবোর্ডে একটি অ্যানিমেটেড ছবি অর্থাৎ জিআইএফ লাইব্রেরি রয়েছে। আপনি কীবোর্ড অ্যাপ ব্যবহার করে বাংলার পাশাপাশি বিশ্বের উল্লেখযোগ্য সব ভাষা টাইপ করতে পারেন। অ্যাপটি Android এবং iPhone (iOS) উভয় প্ল্যাটফর্মেই উপলব্ধ। Read More :

কীবোর্ড কি? কীবোর্ড কত প্রকার ও কি কি?

গুগল ইন্ডিক বাংলা কীবোর্ড

ইংরেজি সহ ভারতীয় উপমহাদেশের ১১টি আঞ্চলিক ভাষা নিয়ে গঠিত Google Indic Keyboard অ্যাপটি আমাদের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে। অ্যাপটিতে ইংরেজি থেকে বাংলায় ফোনেটিক স্টাইলে টাইপ করার সুবিধা রয়েছে। বাংলা বর্ণমালার মাধ্যমে সরাসরি লেখার সুবিধাও রয়েছে।কিবোর্ডে অনুবাদ, ইমোজি ইত্যাদি বৈশিষ্ট্যও রয়েছে। আপনি যদি একটি কীবোর্ড ব্যবহার করেন, তাহলে Google Indic Keyboard আপনার যা প্রয়োজন তা নয়। তবে আপনি এটি চেষ্টা করতে পারেন, যদি আপনি এটি আরও ভাল পছন্দ করেন।বাংলা-কীবোর্ড

রিদ্মিক বাংলা কিবোর্ড

মোবাইল ডিভাইসে বাংলা ফোনেটিক টাইপিংকে জনপ্রিয় করার পেছনের অ্যাপটি আমাদের তালিকায় স্থান পাবে না, কীভাবে এলো! সবার প্রিয় রিদমিক কীবোর্ড অ্যাপ সম্পর্কে কথা বলছি। ১ কোটিরও বেশি ডাউনলোড এবং ৪.৫ রেটিং সহ, রিদমিক কীবোর্ড অ্যাপটি গর্বের সাথে তার জনপ্রিয়তা এবং খ্যাতি ঘোষণা করছে।ফোনেটিক বাংলা টাইপিং সুবিধা ছাড়াও, জাতীয় এবং প্রভাত টাইপিং বিন্যাসও উদ্যোক্তা কীবোর্ড অ্যাপে উপলব্ধ।এটি বিভিন্ন থিম থেকে আপনার পছন্দ বাছাই করার সুবিধা রয়েছে। কীবোর্ড থিম কাস্টমাইজেশনের সুবিধাও রয়েছে। অ্যাপটিতে ভয়েস টাইপিং সুবিধাও পাওয়া যাবে। অ্যাপটিতে প্রায় সব ধরনের ইমোজি যোগ করা হয়েছে। রিদমিক কীবোর্ড অ্যাপ Android এবং iOS উভয় প্ল্যাটফর্মেই ব্যবহার করতে পারবেন।

Read More :

অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়
কীবোর্ড কি? কীবোর্ড কত প্রকার ও কি কি?
বাংলাদেশের জনপ্রিয় ১০ টি YouTube চ্যানেলের ইনকাম
ইউটিউব থেকে আয় করার উপায়-২০২২
বাংলা কীবোর্ড ২০২২

বাংলা কিবোর্ড ২০২২ নামের একটি অ্যাপ তালিকায় চতুর্থ স্থান দখল করেছে। অ্যাপটিতে সাধারণ বাংলা টাইপিংয়ের পাশাপাশি ফোনেটিক টাইপিংয়ের সুবিধা রয়েছে। এতে ভয়েস টাইপিং সুবিধাও রয়েছে। অসংখ্য ইমোজি ছাড়াও কীবোর্ড থিম কাস্টমাইজেশনের সুবিধা রয়েছে। তবে এই অ্যাপে বিজ্ঞাপন দেখা যাবে। উপরে উল্লিখিত অন্যান্য অ্যাপগুলি কোনও বিজ্ঞাপন দেখায় না।

স্বরচক্র কীবোর্ড

স্বরচক্র কীবোর্ড অ্যাপটি তালিকার অন্যান্য কীবোর্ড অ্যাপ থেকে অনেকটাই আলাদা। তালিকার অন্যান্য কীবোর্ড অ্যাপের মধ্যে রয়েছে ফোনেটিক টাইপিং, ভয়েস টাইপিং বা সরাসরি সকালের লেআউট টাইপিং। তবে স্বরচক্র কীবোর্ড এর কোনোটির মতো নয়।স্বরবর্ণ কীবোর্ডে প্রতিটি অক্ষরের সাথে একটি বৃত্তের মতো বিন্যাস সংযুক্ত থাকে, যা কিছুক্ষণ অক্ষরটি চাপলে দৃশ্যমান হয়।অ্যাপটি প্রথমবার ব্যবহার করা কঠিন মনে হতে পারে, কিন্তু সময়ের সাথে সাথে এটি অনেক সহজ হয়ে যায়। স্বরচক্র বাংলা কীবোর্ড অ্যাপের সঠিক ব্যবহার বাংলা টাইপিংয়ের জন্য প্রয়োজনীয় সময়ও বাঁচায়। উল্লেখ্য, স্বরচক্র বাংলা কীবোর্ড অ্যাপে কোনো ইমোজি নেই।

বিজয় বাংলা কীবোর্ড

বিজয় বাংলা কীবোর্ড হল অধিকাংশ মানুষের কম্পিউটারে বাংলা টাইপ করার চাবিকাঠি। অবশেষে এলো বিজয় বাংলা কীবোর্ডের অ্যান্ড্রয়েড সংস্করণ। জীবনের ভাষা বাংলা লেখা যাবে খুব স্বতঃস্ফূর্তভাবে মাত্র 424 KB অ্যাপ দিয়ে। অ্যাপটি গুগল প্লে স্টোরে ১ লাখের বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। বিজয় বাংলা কীবোর্ড অ্যাপটি শুধুমাত্র অ্যান্ড্রয়েড ফোনে ব্যবহার করা যাবে। আমি আশা করি আপনি ব্লগ পছন্দ। আজকের বিষয় ছিল এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা ৭ টি বাংলা কিবোর্ড। আপনি আপনার পছন্দ মতো এন্ড্রয়েড ফোনের সেরা বাংলা কিবোর্ড ব্যবহার করতে পারবেন। আমি আশা করি আপনি ভাল বুঝতে পেরেছেন। ধন্যবাদ!

Leave a Comment

Your email address will not be published.