গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া

অল্প পুঁজিতে গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া || লস ছাড়া ব্যবসা 2022

অল্প পুঁজিতে গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া

স্বাগতম আপনাকে আমার নতুন আরেকটি ব্লগে। আজকে আমি আলোচনা করব অল্প পুঁজিতে গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া। সেরা ১২ টি আইডিয়া আজ আপনাদের শেয়ার করতে যাচ্ছি। তাই শুরু থেকে শেষ অবধি ব্লগটি পড়ুন । এতে আপনি সবগুলো ব্যবসার আইডিয়া সম্পর্কে জানতে পারবেন। ত চলুন শুরু করা যাক….

অল্প পুঁজিতে গ্রামে কিছু লোভনীয় ব্যবসার আইডিয়া। আশা করি শিরোনাম এবং থাম্বনেইল দেখে সবাই বুঝতে পেরেছেন। বর্তমানে ছোট থেকে বড় সবাই ব্যবসা করতে চায়, কেউ কম পুঁজিতে বেশি লাভজনক ব্যবসা করতে চায় আবার কেউ বেশি পুঁজিতে লাভজনক ব্যবসা করতে চায়। তাদের জন্য আজকের পোস্ট পড়লেই পুরো ব্যাপারটা বুঝতে পারবেন।

আজকের পোস্টটি বিশেষ করে যারা নতুন ব্যবসা শুরু করতে চান তাদের জন্য। টাকা বা পুঁজি থাকলে সবাই ব্যবসা করতে পারে কিন্তু সবাই বুঝতে পারে না কোথায় ব্যবসা করে ভালো অর্থ উপার্জন করা যায় তাই আপনি যদি আমাদের সাহায্য না চান তাহলে আপনি নিজের টাকা দিয়ে ব্যবসা করবেন। আপনি যদি গ্রামে লাভজনক ব্যবসা করে অর্থ উপার্জন করতে চান তবে আজকের এই ব্লগটি  আপনার জন্য ই যথেষ্ট।

গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া
গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া

১) মাছের পাইকারি ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

আপনার যদি গ্রামে জায়গা থাকে তবে এই ব্যবসাটি আপনার জন্য। আপনি জায়গায় একটি পুকুর খনন করতে পারেন এবং তাতে মাছের পোনা রাখতে পারেন। সামান্য ফিড দিয়ে শহরে বা গ্রামের বাজারে বিক্রি করে লাভ করা যায়। এর বেশি পুঁজির প্রয়োজন নেই। গ্রামে এ ব্যবসা শুরু করলে আয় বেশি হবে।

২) ফার্মেসি ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

আপনি গ্রামে একটি ছোট দোকান ভাড়া করে একটি ফার্মেসি ব্যবসা শুরু করতে পারেন। ফার্মেসি ব্যবসা শুরু করা লাভজনক হবে না যদি আপনাকে প্রথমে অন্য ফার্মেসিতে যেতে না হয়। গ্রামে লাভজনক ব্যবসা হওয়ায় গ্রামের মানুষ ডাক্তারের কাছে যেতে চায় না তাই তাদের রোগ বুঝে ওষুধ দিতে পারলে আয় দ্বিগুণ হয়ে যাবে। কম কোম্পানির টাকায় ব্যবসা করে মাস শেষে আপনি সহজেই এই টাকা পরিশোধ করতে পারবেন। তাই আপনার মূলধনের প্রয়োজন নেই।

৩) মুদি দোকানের ব্যবসা (গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

আপনি যদি গ্রামে থাকেন তবে এই ব্যবসাটি আপনার জন্য। অল্প পুঁজিতে এই ব্যবসা করতে পারেন। এই ব্যবসা করার জন্য কিছু কৌশল রয়েছে যেমন: আপনি মূলধনকে 3 ভাগে ভাগ করুন, একটি অংশ গ্রাহককে দিন, দোকানের একটি অংশে গ্রাহকের কাছে পণ্য নিয়ে যান, একটি অংশ মূলধন হিসাবে সংরক্ষণ করুন, এই কৌশল। আপনি মুদি দোকানে দুটি উপায়ে পণ্য তুলতে পারেন। আরও পড়ুন 

কেন আমরা ইউটিউব এ সফল হতে পারি না

আপনি নিজে গিয়ে পণ্য নির্বাচন করে কিনতে পারেন। অথবা আপনি কোম্পানি থেকে পণ্য অর্ডার করতে পারেন এবং পণ্য আপনার দোকানে চলে আসবে। যেহেতু এই ব্যবসা কাঁচামালের উপর ভিত্তি করে, আপনি পণ্য দেখে কিনবেন বা বিক্রি করবেন। গ্রামে এই ব্যবসা করলে বেশি লাভবান হবেন কারণ গ্রামের মানুষ সহজ-সরল, তারা জিনিসপত্রের মূল্য জানে না, তাই কম টাকায় বেশি আয় হবে।

৪) পোশাকের পাইকারি ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া)

পাইকারি টেক্সটাইল ব্যবসা বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা। সব ধরনের কাপড়ের ব্যবসা করতে অনেক পুঁজি লাগবে। কিন্তু আপনি যখন কোনো পণ্য নিয়ে পাইকারি ব্যবসা শুরু করেন, তখন আপনার অল্প পুঁজির প্রয়োজন হয়। আজকাল পোশাকের ব্যবসা জনপ্রিয় তাই কাপড় দিয়ে এই পাইকারি ব্যবসা শুরু করুন এবং আপনি প্রচুর লাভ পাবেন।

অনলাইন পোশাক ব্যবসা আজকাল খুব জনপ্রিয় তাই আপনি অনলাইন বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে বেশি দামে পণ্য বিক্রি করে কম দামে পণ্য কিনতে পারেন। থানে কাপড় বা শাড়ি কাপড়ের পাইকারি ব্যবসা একটি অত্যন্ত লাভজনক ব্যবসা। গ্রামের বাজারে ভালো মানের দোকান দিয়ে এই ব্যবসা শুরু করতে পারলে আয় হবে ১০০%।

৫) জুতার পাইকারি ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

জুতার ব্যবসা বর্তমানে আরেকটি সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা। বাড়ির ভিতরে এবং বাইরে সকলের জুতা প্রয়োজন তাই এই ব্যবসার চাহিদা এখন অনেক বেশি। এই ব্যবসায় লাভও অনেক বেশি যেমন: আপনি জুতার কারখানা থেকে জুতা ৩০-৪০ টাকা পাইকারি কিনতে পারেন এবং ৫০-৬০ টাকা পর্যন্ত বিক্রি করতে পারেন, আপনার লাভ ২০ টাকা। এভাবে পাঁচ হাজার জুতা বিক্রি করলে লাভ হয় এক লাখ টাকা। এখন ভাবছেন এই লাভ কি করবেন? এই ব্যবসায় ঝুঁকি কম তাই গ্রামে লাভজনক ব্যবসা করলে আপনি ভালো আয় করতে পারবেন। পাইকারি করলে আর নেই।

৬) হাঁস-মুরগির ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

আপনি যদি গ্রামে থাকেন তবে এক জায়গায় খামার করে এই ব্যবসা শুরু করতে পারেন। এটি বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা হিসাবে বিবেচিত হয়। কিন্তু দিন দিন কিছু অসাধু ব্যবসায়ী এ ব্যবসাকে ধ্বংসের দিকে ঠেলে দিচ্ছে। এই ব্যবসার জন্য মূলধনের প্রয়োজন হয় না, শুধুমাত্র আপনার একটি বাড়ি আছে বলে, বাচ্চা থেকে শুরু করে খাবার, ওষুধ, কেনা-বেচা সবই ডিলারের দায়িত্ব, তাই আপনার কোনো অর্থের প্রয়োজন নেই। এক মাস কঠোর পরিশ্রমের পরে আপনি কেবল একটি বাচ্চা বড় করবেন। পরবর্তী দায়িত্ব ডিলারদের। গ্রামটি এই ব্যবসার জন্য উপযুক্ত।

Read More :

৭) বালু বিক্রির ব্যবসা ( গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া )

গ্রামের কাছাকাছি নদী থাকলে বালু উত্তোলন করে বেশি আয় করা যায়। বর্তমানে গ্রাম থেকে শহরে বালু বিক্রি করা হয়, এতে আপনার খুব বেশি পুঁজি খরচ হয় না। বালি আপনি অর্ডার দিয়ে অগ্রিম টাকা দিয়ে বালি তৈরি করে সহজেই অর্থ উপার্জন করতে পারেন। বালু বিক্রির ব্যবসা সবাই করতে পারে। এটি একটি স্মার্ট ব্যবসা। নদী থেকে বালি সংগ্রহ করে বাড়িতে বিক্রি করার জন্য আপনি মাত্র 5-10 জন লোক তুলতে পারেন।

গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া
গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া

৮) হোটেল ব্যবসা

আপনি যদি গ্রামে থাকেন তাহলে হোটেল ব্যবসা আপনার জন্য। গ্রামে হোটেল বানিয়ে, কারিগর রেখে বা পারলে অনেক টাকা আয় করা যায়। অল্প পুঁজিতে আপনি গ্রামে বসে হোটেল ব্যবসা করতে পারেন। গ্রামে লাভজনক ব্যবসা

৯) ডেইরি ব্যবসা

গ্রামে ব্যবসা করতে চাইলে ডেইরি ব্যবসা করতে পারেন। আপনি প্রথমে ২-৩টি গরু দিয়ে এই ব্যবসা শুরু করবেন তারপর আয় হবে। আপনার দুধ বিক্রির জন্য হোটেলের সাথে যোগাযোগ রাখলে আয় নিশ্চিত হবে। ডেইরি ব্যবসা শুরু করতে হলে প্রথমে গ্যাসের ব্যবস্থা করে তারপর শুরু করতে হবে। নিজেকে সময় না দিলে আয়ের চেয়ে ক্ষতিই বেশি হবে। গ্রামে লাভজনক ব্যবসা।

১০) ব্লগ লেখা

ঘরে বসে ব্যবসা করার সবচেয়ে সহজ উপায় হল ব্লগ লেখা। আপনি চাইলে ফোনে ব্লগ লিখতে পারেন। এই কারণে আপনার একটি ইন্টারনেট সংযোগ প্রয়োজন। গত এক দশকে এই ব্যবসা সারা বিশ্বে জনপ্রিয়তা পেয়েছে। এই ব্যবসার জন্য, আপনাকে প্রথমে আপনার পছন্দের বিষয় নির্বাচন করতে হবে। এমন বিষয়গুলি বেছে নিন যা সময়ের সাথে সাথে অপ্রচলিত হবে না। অবশ্যই, আপনার এই বিষয়ে জ্ঞান এবং আগ্রহ থাকতে হবে, অন্যথায় এটি দীর্ঘ সময়ের জন্য চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে না।

এছাড়াও, আপনাকে ভাষাটি আয়ত্ত করতে এবং লিখতে সক্ষম হতে হবে। ইংরেজির মাধ্যমে আরও বেশি মানুষের কাছে পৌঁছানো সম্ভব, কিন্তু এখন আঞ্চলিক ভাষার ব্লগের চাহিদা বাড়ছে। অনেকেই অনলাইনে মাতৃভাষায় পড়তে পছন্দ করেন। এই ব্লগের মাধ্যমে আপনি কোন পাঠকদের কাছে পৌঁছাতে চান সে সম্পর্কে আপনার পরিষ্কার ধারণা থাকতে হবে। ব্লগের ভাষার ধরন এবং লেখার ধরনের উপর নির্ভর করে। বিভিন্ন বিনামূল্যের অনলাইন ব্লগিং গাইড সহজেই পাওয়া যায়।

আজ আমরা জেনেছি অল্প পুঁজিতে গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া। এই ১০টি গ্রামে ব্যবসার আইডিয়া ছাড়াও, অল্প টাকায় ব্যবসা করার অনেক উপায় রয়েছে, বিনিয়োগ ছাড়াই আয়ের সুযোগ রয়েছে। আশা করছি আপনি বুজতে পেরেছেন অল্প পুঁজিতে গ্রামে বসে ব্যবসা কীভাবে শুরু করতে হবে। লেখাটি যদি আপনার কাছে ভাল লাগে তাহলে ফেসবুকে শেয়ার করুন। ধন্যবাদ।

পরবর্তীতে আমি আপনাদের জন্য বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা, ১০ হাজার টাকায় ২৫ টি ব্যবসার আইডিয়া, মেয়েদের ব্যবসার আইডিয়া,পাইকারি ব্যবসার আইডিয়া,দৈনিক আয়ের ব্যবসা,লস ছাড়া ব্যবসা,নতুন ব্যবসার আইডিয়া ২০২২ ইত্যাদি বিষয় নিয়ে ব্লগ পাবলিশ করব। আশা করছি আপনাদের উপকারে আসবে।