২০২২ সালের সেরা ৭টি প্রফিটেবল ইউটিউব নিশ [7 Best Youtube Niches 2021]

ইউটিউব নিশ ২০২২

আজ আমরা জানব ২০২২ সালের সেরা ৭টি প্রফিটেবল ইউটিউব নিশ সম্পকে ।আমাদের মাঝে অনেকেই আছে যারা হুট করে একটি ইউটিউব চ্যানেল ক্রিয়েট করে কিছুদিন ভিডিও আপলোড করে তারপর হতাশ হয়ে ভিডিও আপলোড করা বন্ধ করে দেই বা কিছুদিন পর আবার ভিডিও দেওয়া শুরু করি। তার একটাই কারণ তা হল আমরা সঠিক নিশ সিলেক্ট করতে পারি না। আমাদের কে আগে জানতে হবে কোন নিশ গুলো নিয়ে আমরা কাজ করলে সফল হব।কোন ধরনের নিশ মানুষ বেশী পছন্দ করে।সেই সমস্ত নিশ নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে।

নিশ কি বা নিশ সিলেকশান কি ?

আমরা হয়ত অনেকেই জানি নিশ কি ? যারা নতুন তাদের জন্য এই বিষটি একটি পরিষ্কার করছি। নিশ হল আপনি ইউটিউবে কোন ধরনের বিষয় নিয়ে কাজ করতে চান। কোন ধরনের ভিডিও তৈরী করতে আপনার ভাল লাগবে। আশা করছি বুজাতে পেরেছি যে নিশ কি? সহজ কথা বলতে গেলে নিশ হল আপনার ভিডিও এর বিষয়বস্তু। এবার আসি মূল কথায়….ইউটিউব নিশ

ইউটিউব নিশ কত প্রকার ও কি কি ?

নিশ কে মূলত দুই ভাগে ভাগ করা যায়

ক) সিজনাল নিশ

খ) এভারগ্রীন নিশ

সিজনাল নিশ

সিজনাল সিশ কি ? সিজনাল নিশ হল সেই সমস্ত বিষয় যেগুলো মানুষ সিজনেই প্রয়োজন মনে করে। একটি উদাহরণ হলে ভাল হয় । মনে করেন আপনি এখন আইপিএল এর খেলা চলছে । আপনি আই পি এল এর একটি চ্যানেল খোলে তাতে ভিডিও আপলোড দেয়া শুরু করলেন। তাতে আপনার ভিডিও খুবিই ভিউ বেশী হবে এবং সাবস্ক্রাইব ও পাবেন। কিন্তু আই পি এল এর খেলা শেষ আপনার চ্যানেল এর ও খেলা শেষ মানে হচ্ছে আপনার চ্যানেল এর ভিউ কমে আসবে। আর এটাই হল সিজনাল নিশ।

খ) এভারগ্রীন নিশ

এভাগ্রীন নিশ হল সেই সমস্ত বিষয় যেগুলো কোন মাস বা দিন নেই সবসময় ই মানুষে চাহিদা থাকে। যেমন মানুষের ৫টি মৌলিক বিষয় এর যেকোন একটি নিয়ে ও যদি আপনি ভিডিও মেক করেন তাহলে আপনার ভিডিও সবাই সব সময় দেখবে।আশা করছি এভার গ্রীন নিশ কি তা বুঝতে পেরেছেন।

উপরোক্ত ২টি বিষয় ছাড়াও আরও অনেক বিষয় রয়েছে যেগুলো নিয়ে কাজ করলে আপনি বেশ ভাল রেজাল্প পাবেন আমি আশা করি।

  • নিউজ
  • ফানি ভিডিও
  • টেক রিলেটেড ভিডিও
  • গেমিং চ্যানেল
  • রিভিউ চ্যানেল
  • ব্লগার চ্যানেল
  • মিউজিক চ্যানেল

এবার আমি একটি একটি করে মোট ৭টি বিষয় নিয়ে আলোচনা করব । শুরু থেকে শেষ অবধি আমার সাথে থাকুন তাহলে কিছুটা হলেও আপনি ইউটিউব নিশ নিয়ে ধারণা পাবেন।

১) নিউজ ভিডিও [ ইউটিউব নিশ ]

নিউজ বা খবর দেখে না এমন কেউ নেই অনলাইনের এই জগতে।এখন আর কেউ খবরের কাগজ এর জন্য অপেক্ষা করতে হয় না। সবাই সকালে বিকালে অনলাইনে ঢু মারে খবর নেয়ার জন্য। তাছাড়া অনলাইনের একটি জনপ্রিয় মাধ্যম হল ইউটিউব।

তাই আপনি আপনার চ্যানেলে যদি আজকের তাজা খবর টি সকাল সকাল ই আপলোড দিতে পারেন তাহলে সবাই আপনার চ্যানেল এর খবর টি দেখবে। তবে নিউজ নিয়ে আপনাকে কাজ করতে হলে আপনাকে সবসময় আপডেট থাকতে হবে।

ইউটিউব নিশ
ইউটিউব নিশ

ইউটিউব থেকে মাসে ১০০০ ডলার আয় করার উপায়

২) ফানি ভিডিও [ ইউটিউব নিশ ]

এই সময়ে সবচেয়ে বেশী ভিউ হয় হল ফানি ভিডিও। আপনি ও আপনার কয়েকটি বন্দু বান্ধব মিলে গ্রুপ তৈরী করে ফানি ভিডিও মেক করতে পারেন।প্রথম দিকে কষ্ট হলেও মাস শেষে যখন পকেট ভর্তি টাকা হবে তখন সব কষ্ট দেখবেন চলে গেছে। কাইশ্যার ফানি ভিডিও এর কথা কে না জানে। অনেক টাকা ইনকাম করছ এসব ফানি ভিডিও মেক করে। আপনাদের বুজার জন্য আমি কয়েকটি ফানি ভিডিও চ্যানেল এর লিংক দিয়ে দিলাম। ঘুরে আসুন। তাহলে খুব সহজে বুঝতে পারবেন কীভাবে ফানি ভিডিও মেক করবেন।

৩) টেক রিলেটেড চ্যানেল [ ইউটিউব নিশ ]

আমরা যদি কোন কিছু না জানি তাহলে আমরা কিন্তু সবার প্রথমে গুগল করি তা হলে ইউটিউব এ খুজাখুজি করি। তবে এই সময়ে মানুষ ভিডিও দেথে শিখতে বেশী পছন্দ করে। ধরেন আপনি একটি ভিডিও বানালেন কীভাবে কম্পিউটার এক্সপি সেটআপ দিতে হয়?

বিশ্বাস করেন এখন ও অনকেই জানেনা কিভাবে কম্পিউটার এর এক্সপি সেটআপ দিতে হয় এটা দুষের কিছু না। কারণ জন্ম থেকে কেউ ই শিখে আসে নি। তাহলে আপনি যদি কারুর সমস্যার সমাধান এর ভিডিও আপলোড করতে পারেন তাহলে অবশ্যই আপনার ভিডিও মানুষ দেখবে। এই সময়ে মানুষ দিন হতে দিন টেক বিষয়ে জানার জন্য উদগ্রীব হয়ে উঠছে।

৪) গেমিং চ্যানেল [ ইউটিউব নিশ ]

গেমস খেলতে কে না পছন্দ করে বলুন। গেম খেলবেন আর ভিডিও বানাবেন । কত সহজ তাই না। হ্যা আসলেই সহজ । কিভাবে স্কিন রেকড করে ভিডিও বানাবেন তা জানার জন্য এই আর্টিকেলটি পড়ে আসতে পারেন। ……………….। আমাদের দেশে গেমিং এত জনপ্রিয় না কিন্তু বাহিরের দেশগুলোতে ছোট থেকে শুরু করে বড় বয়সের লোকেরা ও গেমিং খুব পছন্দ করে থাকে। তাই গেমিং কে একটি এভারগ্রিন নিশ ও বলা চলে।

৫) রিভিউ চ্যানেল [ ইউটিউব নিশ ]

কোন একটা প্রডাক্ট এর রিভিউ তৈরী করে ভিডিও বানানোর কথা বলছি আমি । যেমন বাজারে অনেক নতুন নতুন মোবাইল আসে। সেই সমস্ত মোবাইল নিয়ে আপনি রিভিও ভিডিও বানাতে পারেন।সদ্য বের হওয়া মোবাইলটির দাম কত, ফিচার কি, কোথায় পাওয়া যাচ্ছে, সুবিধা ও অসুবিধা। বিশ্বাস করুন আর নাই করুন উপরের সব কয়টি নিশ থেকে সবচেয়ে বেশী প্রফিটেবল হল রিভিউ চ্যানেল ।

কারন আপনার চ্যানেল যদি ৫ হাজার সাবস্ক্রাই হয়ে যায় ঠিক তখন থেকেই আপনি স্পন্সর পাওয়া শুরু করবেন। ভাগ্য ভাল হলে তার আগেও পেয়ে যেতে পারেন। বাংলাদেশে এমন অনেক রিভিউ চ্যানেল আছে যারা এডস্যান্স থেকে প্রায় চারগুন টাকা ইনকাম করে শুধু মাত্র স্পন্সর থেকে। তাই এটি একটি ভাল ও প্রফিটেবল নিশ।

৬) ব্লগার চ্যানেল [ ইউটিউব নিশ ]

এই সময়ের সবচেয়ে বেশী জনপ্রিয় নিশ হল ব্লগ চ্যানেল তবে কয়েক বছর আগেও এগুলো এত জনপ্রিয় ছিল না বাংলাদেশে। হ্যা আমি বাংলাদেশের কথা বলছি। তওহিদ আফ্রিদির কথা কে না জানে। বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় ব্লগ চ্যানেল হল তওহিদ আফ্রিদি। আপনি সারা দিন কোথায় কাটালেন, কি করলেন, কি খেলেন এই সব হিজি বিজি নিয়েই ভিডিও মেক করুন ।

আর তা আপনার চ্যানেলে এ আপলোড করুন। দেখবেন আপনার চ্যানেল ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে। তবে এই সময়ে এই ধরনের ভিডিও সবাই বেশী দেখতেছে। আপনাদের সুবিধার জন্য আমি কয়েকটি ব্লগ চ্যানেল এর লিংক দিয়ে দিলাম । এগুলো দেখলেই আপনি বুঝতে পারবেন কীভাবে ব্লগ এর জন্য ভিডিও মেক করতে হয়।

৭) মিউজিক চ্যানেল

মিউজিক চ্যানেল হল অনেক জনপ্রিয় । এটা সবাই পারবে না। তবে আপনি যদি ভাল গান গাইতে জানেন বা আপনার পরিবারের কেউ একজন নাম করা শিল্পী তাহলে আপনি একটি মিউজিক চ্যানেল শুরু করতে পারেন। তাছাড়া আপনি সবসময় গিটার নিযে গান করেন তাতেও আপনি শুরু করতে পারেন। কারণ বিনোদনের একটি অংশ হল গান বা মিউজিক। এটা সবাই ই পছন্দ করে।

এতক্ষন ধরে ব্লগ টি কষ্ট করে পড়ার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। মূল কথা হল ইউটিউব শুরু করার আগে আপনাকে অবশ্যই নিশ বিষয়টি খুব ভাল করে বুঝতে হবে। তা না হলে আপনি ভিডিও মেক করে ও কোন ভাল ফলাফল পাবেন না । পরে হতাশ হয়ে ভিডিও বানানো ছেড়ে দিবেন আমার মত। যেমন টা আমি আগে করেছিলাম। তবে উপরোক্ত আর্টিকেলটি আমার সম্পূ্ন অভিজ্ঞতার আলোকে লেখা। আমার এই লেখা থেকে একজন মানুষ ও যদি উপকার হয় তাতেই আমার লেখা সফল হবে।

Leave a Comment

Your email address will not be published.